‘পুলিশ যদি ছাত্রদের জীবন ধ্বংসে নাটক সাজায় জনগণ যাবে কোথায়’

আমার ক্যাম্পাস, ঢাকা: ‘স্বয়ং পুলিশই যদি নিরপরাধ ছাত্রদের জীবন ধ্বংস করার জন্য জঘন্য নাটক সাজায় তাহলে জনগণ যাবে কোথায়’ মন্তব্য করে বিবৃতি দিয়েছে ছাত্রশিবির ।

গত ‘পাঁচদিন আগে’ গ্রেফতারের পর ‘গতকাল শিবির নেতাকর্মীদের আম বাগান থেকে অস্ত্র,গুলি ও হাতবোমাসহ’ গ্রেপ্তার দেখানোর প্রতিবাদ বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

যশোর জেলা শিবিরের সভাপতি রাফিদ হাসান, শিবির কর্মী আবুল কাসেম ও তরিকুল ইসলামকে গ্রেফতারের প্রতিক্রিয়ায় এ বিবৃতি দেয় শিবির।
যৌথ বিবৃতিতে ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন,যশোরে ৫দিন আটক রাখার পর শিবির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে পুলিশের অস্ত্র ও বিরষ্ফোরক উদ্ধারের নাটকে পুরো জাতি বিষ্মিত।

তারা বলেন, বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মতিউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেছেন, ৫ই জুন বিকালে শিবির নেতাদের আম বাগান থেকে অস্ত্র, গুলি ও হাতবোমাসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যা সম্পূর্ণ বানোয়াট ও ঘৃণ্য মিথ্যাচার। মূলত গত ১লা জুন সকাল ৮টায় বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজপুকুর দক্ষিণপাড়া প্রাইমারি স্কুলের সামনে থেকে এএসআই জহিরের নেতৃত্বে তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

তাৎক্ষণিক ভাবে থানায় যোগাযোগ করা হলে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি স্বীকার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের পরিবারের কাছেও গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করে তারা থানায় আছে জানানো হয়।

গ্রেপ্তারের পর তাদের আদালতে হাজির করার কথা। কিন্তু গ্রেপ্তারের পর ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও অজ্ঞাত কারণে তাদের আদালতে হাজির করা হয়নি। উল্টো গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করে। এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে এবং অবিলম্বে তাদের সন্ধান দাবি করে ছাত্রশিবিরের পক্ষ থেকে বিবৃতি প্রদান করা হয়। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। অথচ খবর প্রকাশের একদিন পর পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও বিষ্ফোরক আইনে মিথ্যা মামলা দিয়ে যশোর আদালতে পাঠিয়েছে। পুলিশ তাদের নীতিহীন বেআইনি অপকর্মকে আড়াল করতেই এই অস্ত্র ও বোমা উদ্ধার নাটক সাজিয়েছে তাতে কোন সন্দেহ নাই।

নেতৃবৃন্দ বলেন, এই ঘটনা পুলিশের পবিত্র দায়িত্বের প্রতি চরম অবমাননার নিকৃষ্ট নজির হয়ে থাকবে। পবিত্র রমজান মাসেও পুলিশের এই অমানবিক কর্মকাণ্ডে জনগণ দারুণ ভাবে হতাশ ও ক্ষুদ্ধ। এই ধরণের অপকর্ম পুলিশের প্রতি জনগণের আস্থাহীনতাই শুধু বৃদ্ধি করবে।

অবিলম্বে নিরপরাধ শিবির নেতাদের নামে সাজানো মামলা প্রত্যাহার করে তাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান তারা।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি